আপনি কি জানেন বিদেশেও একটি জায়াগার নাম মেদিনীপুর ?-জেনে নিন


আপনি কি জানেন বিদেশেও একটি জায়াগার নাম মেদিনীপুর ?-জেনে নিন
নমস্কার বন্ধুরা,কেমন আছেন? আশা করি খুব খুব ভালো আছেন!

ন্ধুরা আজকে যে'ই বিষয় নিয়ে আলোচনা  করবো সেটা হল পৃথিবীর আরেক প্রান্তে অবস্থিত একটি স্থান রয়েছে যে'ই জায়গাটির নামও মেদিনীপুর, নিশ্চই অবাক হচ্ছেন এবং সাথে গর্বিতও অনুভব করছেন  ? হ্যাঁ বন্ধুরা এটা ঠিকই পড়ছেন।
এবার, বন্ধুরা চলুন  জেনে নিই এই বিষয় সম্পর্কে বিস্তারিত।

পনি কী জানেন?  কানাডার আলবার্তো প্রদেশের ক্যালগারি শহরের মধ্যে একটি স্থান রয়েছে যে-ই জায়গাটা'র নাম মেদিনীপুর, এবং  সেটি উত্তর এবং পূর্বদিকে ফিশ ক্রিক প্রাদেশিক উদ্যান দ্বারা আবদ্ধ, দক্ষিণে সান ভ্যালি বুলেভার্ড এবং পশ্চিমে ম্যাক্লিয়ড ট্রেইল দ্বারা আবদ্ধ।
১৮৩৮ সাল পর্যন্ত এই অঞ্চলটির নাম ছিলো ফিশ ক্রিক। নামটি মূলত আমাদের ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মেদিনীপুর জেলাশহর থেকে এসেছে।
পশ্চিমবঙ্গের অন্তর্গত মেদিনীপুর, পৃথিবীর এক প্রান্তে অবস্থিত আমাদের জেলা/শহর  মেদিনীপুর, যা  অবিভক্ত মেদিনীপুর,
পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের অন্তর্গত মেদিনীপুর বিভাগের একটি জেলা। ২০০২ সালের ১লা জানুয়ারী বৃহত্তর অবিভক্ত মেদিনীপুর জেলাকে দুই ভাগে বিভক্ত করে এই জেলা প্রতিস্থাপিত হয়। এই জেলাতে তিনটি মহকুমা রয়েছে খড়গপুর, মেদিনীপুর সদর এবং ঘাটাল।
পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার সদর শহর, স্বাধীনতা আন্দোলনের প্রাণকেন্দ্র। শহরের নামটি কোথা থেকে এসেছে তা নিয়ে বিভিন্ন জন বিভিন্ন মতামত পোষন করেছেন। অনেকে মনে করেন স্থানীয় দেবী মেদিনীমাতা থেকে মেদিনীপুর নামটি এসেছে। অন্য মতটি হল তেরো শতকে সামন্তরাজা প্রাণকরের পুত্র মেদিনীকর মেদিনীপুর প্রতিষ্ঠা করেন। তাঁর নামানুসারেই মেদিনীপুর নামটি এসেছে। বিখ্যাত সংস্কৃত অভিধান ‘মেদিনীকোষ’ মেদিনীকরের রচনা।যাই হোক সেই সেই প্রসঙ্গে  পরে আলচনা করা যাবে,
তো, এখন বিষয় হচ্ছে এই নাম কানাডা অবধি কী করে গেল, সে সম্পর্কিত বেশ কয়েকটি গল্পও রয়েছে।আসুন জেনে নেওয়া যাক !-

সর্বাধিক প্রচলিত গল্পটি হ'ল ভারতের অবস্থিত পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের মেদিনীপুরের অবিভক্ত মেদিনীপুরজেলার –এর উদ্দেশ্যে নির্ধারিত একটি পার্সেল বা চিঠি ভুল করে ফিশ ক্রিকে চলে যায়,যেখানে প্রথম বসবাসকারীদের মধ্যে একজন যাঁর নাম জন গ্লেন তাঁর প্রতিবেশী স্যামুয়েল শ-এর হাতে চিঠিটি দিয়েছিলেন।স্যাম শ সেখানকার প্রথম পোস্টমাস্টার হওয়ার সুবাদে এটি পেয়েই এই অঞ্চলটির এইরূপ নামকরণ করেছেন।
দ্বিতীয় গল্পটি হ'ল এই স্যামুয়েল শ, এই জায়গাটির নামকরণ করার জন্য তাঁর কন্যাকে একটি মানচিত্রে এলোমেলো স্থানে আঙুল দিতে বলেছিলেন; কন‍্যা মেদিনীপুরের ওপরে আঙুল দেওয়ায় এই নাম বেছে নেওয়া হয়েছিল।

আরেকটি গল্প, অন্যদের তুলনায় খুব কম প্রচলিত, এক প্রাক্তন ব্রিটিশ নেভাল অফিসার ছিলেন ক্যাপ্টেন বয়েন্টন নামে, যিনি ফিশ ক্রিক অঞ্চলে বসবাস করেছিলেন এবং তৎপূর্বে ভারতে ব্রিটিশ সেনাবাহিনীর সাথে দায়িত্ব পালন করেছিলেন এবং তাঁর স্মৃতি হাতড়ে এই মেদিনীপুর নামটি এই এলাকার জন‍্য ঠিক করেন।এই ক্ষেত্রে কানাডার আলবার্তো প্রদেশের ক্যালগারি শহরের মধ্যে একটি স্থান রয়েছে যে-ই জায়গাটা'র নাম মেদিনীপুর এই বিষয়ে কোন গল্পটি সত‍্য, তা বিচার করা পরের কথা। বিদেশে ভারতের কোন স্থানের নাম বা ভারতীয় স্থানের নাম দেখতে আমাদের সবারই ভালো লাগে।, বিশেষ করে আমাদের ভারতবর্ষের স্বাধীনতা আন্দোলনের প্রাণকেন্দ্র, বন্ধুরা! এক রকমভাবে বলাই যেতে পারে এটি বিশ্বব্যাপী ভারতীয়ত্বের অনুভূতি দেয়।

ছবি ও তথ‍্যসূত্র: ইন্টারনেট।

Have any Question or Comment?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: