ডোমেইন কি এবং ইহা কোন কাজে ব্যাবহৃত হয়?


ডোমেইন (Domain) কি একটি ইংরেজি শব্দ  এর বাংলা অর্থ হলো স্থান বা ঠিকানা যা ইন্টারনেট জগতে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। মূলত, ডোমেইন নাম বলতে সাধারনভাবে কোন একটা ওয়েবসাইটের নামকে বোঝায়।প্রত্যেক ওয়েবসাইটের একটি নির্দিষ্ট আইপি অ্যাড্রেস (IP Address) থাকে। যেমনঃ 57.210.147.295. সাধারণত এই আইপি অ্যাড্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট মনে রাখা কষ্টসাধ্য। তাই মনে রাখার সুবিধার জন্য আইপি অ্যাড্রেসের পরিবর্তে ডোমেইন-র নাম ব্যবহার করা হয়। এছাড়া এক বা একাধিক কম্পিউটার কে ইন্টারনেট এ চেনার জন্যও ডোমেইন নাম ব্যবহার করা হয়।

সাধারনত, বিভিন্ন ধরনের  ব্যবসা প্রতিষ্ঠান; স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়; সরকারী দপ্তর, ই-কমার্স;  অনলাইন ব্যাঙ্কিং, নিবন্ধন এবং নিউজ সহ নানাবিধ কাজে ডোমেইন নাম রেজিস্ট্রেশন করার পর ওয়েবসাইট তৈরি করে  সার্ভিস দেওয়া বা নেওয়ার মাধ্যমে ডোমেইন ব্যাবহার করা যায়।

ডোমেইন  বলতে কী বোঝায়:
ডোমেইন বলতে সাধারনভাবে কোন একটা ওয়েবসাইটের নামকেই বোঝায়। প্রত্যেক ওয়েবসাইটেরও একটি নির্দিষ্ট আই.পি অ্যাড্রেস থাকে। কিন্তু আইপি দিয়ে ওয়েবসাইট মনে রাখা ভিষনই কষ্টসাধ্য। তাই এই বিষয়ে এটি মনে রাখার সুবিধার্থে জন্য আইপি অ্যাড্রেসের পরিবর্তে ডোমেইন নাম ব্যবহার করা হয়। এছাড়া এক বা একাধিক কমপিউটার কে ইন্টারনেট এ চেনার জন্যও ডোমেইন নাম ব্যবহার করা হয়।

যে সব কাজে এই ডোমেইন ব্যবহার করা হয়ঃ
এবারে আসা যাক মূল যে বিষয় সেটা হল যে সব কাজে ডোমেইন ব্যবহৃত হয়, এবারে আমরা ডোমেইন নাম এর কিছু ব্যবহার দেখে নিইঃ- https://www.google.com/ – https://www.youtube.com/ – https://www.facebook.com/ – এখানে গুগল, ইউটিউব ও ফেসবুক কে আমরা সাধারণত আইপি অ্যাড্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট মনে রাখা কষ্টসাধ্য হওয়ার কারনে ডোমেইন নাম দিয়ে সহজেই খুঁজে পাই।

ডোমেইন শুধুমাত্র .com Extension দিয়েই হবে সেরকম নয়। মূলত উদ্দেশ্য উপর ভিত্তি করে এগুলো ব্যবহার করা হয়ে থাকে। আশা করি নিচের উদাহরণ গুলো দেখলে বুঝতে পারবেন। যেমনঃ

সাধারন কাজ বা ব্যবসার জন্য .com (https://www.www.hostinger.in/) Extension ব্যবহার করা হয়।অরগানাইজেশনের এর জন্য .org (https://www.wikipedia.org/) Extension ব্যবহার করা হয়। এছাড়াও আরও আছে যেমন এডুকেশনাল-শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এর জন্য .edu
গভর্নমেন্টাল-রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান এর জন্য .gov
ইনফরমেশন সাইটের জন্য এর জন্য .info ব্যবহার করা হয়।
নেটওয়ার্কিং সাইটের জন্য এর জন্য .net ব্যবহার করা হয়।

উপরে যেসব ডোমেইনের এর কথা বলা হয়েছে সেটি Top Level ডোমেইন। আপনি যদি এগুলো আপনার ওয়েবসাইটে ব্যবহার করতে চান তাহলে আপনাকে টাকা দিয়ে Registration বা কিনতে হবে। প্রোভাইডার ভেদে ডোমেইন এর দাম কম বেশি হয়ে থাকে । সাধারনত এই সব ডোমেইন এর ভ্যালিডিটি এক বছরের জন্য। তবে যারা এক বছরের জন্য কিনে থাকেন তাদের কে ট্রেড লাইসেন্স এর মতো প্রতি বছর রিনিউ করতে হয়।

এছাড়া, সময়ের পরিবর্তনের সাথে সাথে ব্যাবহারকারীদের সুবিধা মাথায় রেখে বিভিন্ন ধরনের Extensions এসেছে । চাইলে Targeted Niche Select করেও নির্ধারিত Extensions নেয়া যায়। যেমন .health; .club; .fun; .cat; .design; .shop; .service ইত্যাদি।

ইন্টারনেটে যত ওয়েবসাইট রয়েছে তার ৫২ শতাংশই .COM ডোমেইন ও অন্যান্য ডোমেইন নিয়ে বিভিন্ন Werbsite অথবা Bolg তৈরি করা হয়েছে। তার মানে হলো মানুষ সাধারণভাবেই এটি ভেবে থাকেন, যে কোন ওয়েবসাইট একটি .COM ডোমেইন Extensions দিয়ে শেষ হয়। তাই যদি আপনার সুযোগ থাকে তাহলে .COM ডোমেইন Extensions ব্যবহার করাই আপনার জন্য সঠিক হবে।

Have any Question or Comment?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: